1. hrhfbd01977993@gmail.com : admi2017 :
  2. editorr@crimenewsmedia24.com : CrimeNews Media24 : CrimeNews Media24
  3. editor@crimenewsmedia24.com : CrimeNews Media24 : CrimeNews Media24
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
"ফটো সাংবাদিক আবশ্যক" দেশের প্রতিটি থানা পর্যায়ে "ক্রাইম নিউজ মিডিয়া" সংবাদ সংস্থায় ১জন রিপোর্টার ও ১জন ফটো সাংবাদিক আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীরা  যোগাযোগ করুন। ইমেইলঃ cnm24bd@gmail.com ০১৯১১৪০০০৯৫
সংবাদ শিরোনাম ::
সামুদ্রিক সম্পদ আহরণে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর কে এই সফিক? উত্তরায় খুলেছে নারী বিক্রির হাট কে এই সফিক? উত্তরা খুলেছে নারী বিক্রির হাট। দুবাই, কাতার, সৌদি আরব, মালদ্বীপ, ভারতে পাঁচার হচ্ছে অল্প বয়সি নারী। মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী শরীয়তপুরে সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দকৃত অর্থ, লুটপাট বন্ধ করার জন্য অভিযোগ জমা পরেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ৪৮ কেজি গাঁজাসহ চারজনকে গ্রেফতার ইবতেদায়ী নূরানীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা’র নবগঠিত ম্যানেজিং কমিটির পরিচিতি সভা ঈমান …….. মোঃ মনির হোসেন  পুলিশের নাকের ডগায় গার্ডেন ভিউ ও বি-বাড়িয়া আবাসিক হোটেলের সাইনবোর্ডের অর্ন্তরালে মানব পাঁচার ও নানাবিধ অপরাধ কর্ম

গাইবান্ধায় শিকলে বাঁধা বাবা-মেয়ের পাশে এসপি

  • আপডেট সময় সোমবার, ৪ এপ্রিল, ২০২২, ৯.৪৮ পিএম
  • ১২৯ বার পড়া হয়েছে

গাইবান্ধায় দীর্ঘ সাত বছর ধরে শিকলে বাঁধা মানসিক ভারসাম্যহীন বাবা মোহাম্মদ আলী (৫৫) ও মেয়ে রেহেনার (২১) পাশে দাঁড়িয়েছেন পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম। 

সোমবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে পুলিশ সুপার সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের উত্তর আনালেরতাড়ী গ্রামে তাদের বাড়িতে যান। সার্বিক খোঁজখবর নিয়ে তিনি খাদ্য ও আর্থিক সহযোগিতা করেন এবং চিকিৎসার জন্য পাবনা মানসিক হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

এদিকে মোহাম্মদ আলীরও দিন দিন মানসিক ভারসাম্যহীনতা বেড়ে যায়। দীর্ঘ সাত বছর ধরে বাবা-মেয়ে দুজনেই পরিপূর্ণভাবে মানসিক ভারসাম্য হারায়। মোহাম্মদ আলী মাঝে মধ্যেই জিনিসপত্র ভাঙচুর এবং লোকজনকে মারধর করেন। মেয়ে রেহেনা মাঝে মাঝো হারিয়ে যায়। এসব কারণে তাদের শিকলে বেঁধে রাখা হয়। তাদের সামান্য যে জমি ছিল সেটি বিক্রি করে চিকিৎসার পেছনে ব্যয় করা হয়। তখন থেকেই মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী হালিমা বেগম অতি কষ্টে অন্যের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালাচ্ছেন।

পরে অসহায় পরিবারের বাবা-মেয়ের দীর্ঘদিনের শিকলবন্দি জীবন সম্পর্কে জানতে পারেন গাইবান্ধার পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম। এরপরেই তাদের দেখতে ও খোঁজখবর নিতে ওই বাড়িতে যান এবং অসুস্থ বাবা-মেয়ের চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন তিনি।

পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন একটি অসহায় পরিবারের বাবা-মেয়ের শিকলবন্দি জীবন সম্পর্কে জানতে পেরে তাদেরকে দেখতে যাই। সেখানে তাদেরকে কিছু নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা করি। পুলিশের পক্ষ থেকে সম্পূর্ণ খরচে পাবনা মানসিক হাসপাতালে বাবা-মেয়ের চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_crimenew87
© All rights reserved © 2015-2021
Site Customized Crimenewsmedia24.Com