1. hrhfbd01977993@gmail.com : admi2017 :
  2. editorr@crimenewsmedia24.com : CrimeNews Media24 : CrimeNews Media24
  3. editor@crimenewsmedia24.com : CrimeNews Media24 : CrimeNews Media24
মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১১:২৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
"ফটো সাংবাদিক আবশ্যক" দেশের প্রতিটি থানা পর্যায়ে "ক্রাইম নিউজ মিডিয়া" সংবাদ সংস্থায় ১জন রিপোর্টার ও ১জন ফটো সাংবাদিক আবশ্যক। আগ্রহী প্রার্থীরা  যোগাযোগ করুন। ইমেইলঃ cnm24bd@gmail.com ০১৯১১৪০০০৯৫

দুই তরুণীকে আটকে রেখে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করানোর অভিযোগ

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১, ২.১৪ পিএম
  • ১৪১ বার পড়া হয়েছে
দুই তরুণীকে আটকে রেখে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করানোর অভিযোগ

সিএনএম প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামে নগরীর ডবলমুরিং থানাধীন মোগলটুলীতে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে দুই তরুণীকে বাসায় আটকে রেখে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করানোর অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৭ মে) রাতে ডবলমুরিং থানাধীন মোগলটুলীর কাটা বটগাছ মোড়ের জাফর সওদাগরের ভবনের তৃতীয় তলায় আক্তারের বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার ও দুই নারীকে উদ্ধার করা হয়।
মঙ্গলবার (১৮ মে) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন।

অভিযুক্তরা হলেন : মো. আক্তার হোসেন (৬৩), আবু হোসেন টিপু (২৯), মো. মজিবুল বশর রাজু (২০), মো. আলমগীর হোসেন আলম (৩৫), মো. ইকবাল হোসেন জুয়েল (৩১) ও মো. বেলাল খান (৩১)।

ডবলমুরিং থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, পোশাক কারখানায় চাকরি হারানো এক তরুণীকে ভালো চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গত ১১ মে আক্তারের কাছে নিয়ে যায় আকাশ নামে এক ব্যক্তি। এরপর ওই তরুণী জানতে পারেন তাকে আক্তারের কাছে ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দিয়েছে আকাশ। এরপর ওই তরুণীকে আটকে রেখে দেহব্যবসা করতে বাধ্য করে অভিযুক্তরা।

তিনি বলেন, একই বাসায় আরেক তরুণীকেও আটকে রেখে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করা হচ্ছিল; যাকে গত ১৪ এপ্রিল আক্তারের কাছে বিক্রি করে শুক্কুর নামে একজন। ওই বাসায় গত ১৫ মে রাতে গিয়ে তিনটি মোবাইল ফোন হারিয়ে ফেলেন এক ব্যক্তি। এরপর মোবাইল ফিরে পেতে গতকাল সোমবার রাতে বন্ধুদের নিয়ে ওই বাসায় যান তিনি। পাশাপাশি তিনি ঘটনাটি পুলিশকেও জানান। এরপর পুলিশ ওই বাসায় অভিযান চালিয়ে দুই তরুণীকে উদ্ধারের পাশাপাশি ৬ জনকে গ্রেফতার করে। এছাড়া ছিনিয়ে নেওয়া ২টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

ওসি বলেন, এ ঘটনায় মোবাইল ফোন হারানো ব্যক্তি ও ভুক্তভোগী এক তরুণী বাদী হয়ে দুটি মামলা করেছেন। এর মধ্যে মোবাইল ছিনিয়ে নেওয়ার মামলায় ইকবাল, আবু হোসেন, মজিবুল ও আলমগীরকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তরুণীর করা মামলায় ওই চারজনসহ ছয়জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। একই মামলায় আকাশ ও শুক্কুর নামে দুইজন পলাতক আছেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_crimenew87
© All rights reserved © 2015-2021
Site Customized Crimenewsmedia24.Com